ই-ভ্যালির ব্যবসা কি শরয়ীত সম্মত?

0

কওমিকণ্ঠ ডেস্ক : কিনলেই অর্থ ফেরতের অস্বাভাবিক ‘ক্যাশব্যাক’ অফার দিয়ে ব্যবসা করছে বাংলাদেশি ডিজিটাল বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ই-ভ্যালি। ১০০ থেকে ১৫০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশব্যাক অফার দেওয়া হচ্ছে। অর্থাৎ ১০০ টাকার পণ্য কিনলে সমপরিমাণ বা তার চেয়েও বেশি অর্থ ফেরত দেয প্রতিষ্ঠানটি। এমন লোভনীয় অফারে হাজার হাজার গ্রাহক আকৃষ্ট হচ্ছেন।

জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মোহাম্মদপুর, ঢাকা’র প্রধান মুফতি, মুফতি হিফজুর রহমান বলেন, এখানে তাদের পলিসি কী সেটা আগে জানতে হবে। তবে সমষ্টিগতভাবে বলা যায়, লসে পণ্য বিক্রি করা উচিত না। ইসলাম কোনো ঠগবাজিতে বিশ্বাসী না। ধোঁকা দেয়া কিংবা প্রতারণা করা ইসলামে নেই। রাসূল সা. বলেছেন, যে ব্যক্তি প্রতারণা করলো সে আমাদের দলভূক্ত নয়। সুতরাং যদি পন্য কেনাবেচার ক্ষেত্রে কোনো ধরনের প্রতারণার আশ্রয় নেয়া হয় তাহলে সেটা ইসলাম কখনোই সমর্থন করবে না।

তিনি বলেন,  পণ্য কেনার সাথে সাথে দাম পরিশোধ করতে হয় ক্রেতার। বিক্রেতাও নগদ পণ্য ডেলিভারী দিবেন। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু যদি এমন হয় যে, বিক্রেতা আগে টাকা নিবেন পরে ‘বেঁধে দেয়া নির্দিষ্ট সময়ে’ পণ্য দিবেন। এটা জায়েজ। পণ্য অর্ডার দেয়ার মতো হলো এটি। এটার উদাহরণ দেয়া যেতে পারে এভাবে। কোনো ব্যক্তি দোকানে পণ্য অর্ডার দিলো। অর্ডার দেয়ার সময়ই টাকা পরিশোধ করে দিলো। এরপর দোকানদার সে পণ্যটির ব্যবস্থা করে দিলো। এখানে ইসলামে কোনো বিধিনিষেধ নেই। অর্থাৎ পণ্য কিনতে গিয়ে আগে দাম পরিশোধ করাতে কোনো সমস্যা নেই।

ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  

Comment

Share.