একজন সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া ও আমাদের প্রত্যাশা

0

ইবনে সিরাজ ।।

বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগি, সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া। মৌলভীবাজার জেলার ঐতিহ্যবাহী বড়লেখার এক ধার্মিক পরিবারে জন্ম নেয়া অনন্য প্রতিভার অধিকারি বিপ্লবী তরুণ। সফলতার চাদরে মোড়ানো যার বর্তমান। নিত্য নতুন আইডিয়া নিয়ে ইতিমধ্যেই নতুন প্রজন্মের এক পরিচিত স্বত্বা হয়ে উঠেছেন তিনি। ব্যতিক্রমধর্মি বিভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে এদেশে সুস্থ ধারার সংস্কৃতির যে পরিচর্যা শুরু করেছেন, তা সত্যিসত্যিই প্রশংসার দাবিদার।

এইতো গতোকাল শেষ হলো তাঁর পরিচালিত ‘কাওনাইন টিভি’র উদ্যোগে আয়োজিত মাহে রামাজান উপলক্ষে ‘অনলাইন তেলায়াতে কুরআন , হামদ-নাত প্রতিযোগিতা’র পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। অনলাইন জগতে তার এই অভিনব উদ্যোগ ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। সর্বমহলে তাঁর এই আয়োজন প্রশংসা কুড়িয়েছে। করোনাকালিন স্থবির সময়ে ভিন্নধর্মী অথচ ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ এই অনুষ্ঠানের কারনে প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন তিনি।

সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া এই প্রথমই কোনো চমক দেখিয়েছেন ;এমনটি নয় মোটেও। এর আগে গতো ফেব্রুয়ারিতে তার প্রতিষ্ঠিত Mahadul kawnain-মা’হাদুল কাওনাইন এর উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছিলো ‘আধুনিক মাসাঈল প্রতিযোগিতা’। প্রায় ৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে আয়োজিত ঐ অনুষ্ঠানটি অনলাইন অফলাইনে ব্যাপক আলোচিত হয়েছিলো। বিশেষ করে আলেম সমাজের কাছে তাঁর ‘আধুনিক মাসাঈল প্রতিযোগিতা’র আয়োজনটি ‘যুগান্তকারী’ ও ‘অনন্য’ আয়োজন হিসেবে গৃহিত হয়েছে। প্রথম পুরস্কার হিসেবে পবিত্র উমরাহ পালনের জন্য ১লক্ষ টাকার পুরস্কার এই অনুষ্ঠানটিকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছে।

নিজ অফিসে কর্মরত মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া

মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া। সিলেটের ঐতিহ্যবাহী জামেয়া মাদানিয়া কাজির বাজার মাদরাসার কৃতি সন্তান। দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স) ওখান থেকেই কমপ্লিট করেন। শিক্ষা জীবন শেষেই শিক্ষকতার পাশাপাশি নিজেকে মানব সেবার কাজে নিয়োজিত করেন। গঠন করেন “বঞ্চিত গ্রাম বাংলা উন্নয়ন পরিষদ”। এই সংগঠনের ব্যনারে এগিয়ে আসেন গরীব দুঃখী মেহনতি মানুষের অধিকার আদায়ে।

গরীব-ভূমিহীন মানুষের জন্য সরকারি অনাবাদি ও খাস জমিন বরাদ্দের দাবী তুলেন। তার এই দাবিতে একাত্মতা জানায় বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। দেশের বৃহত্তম হাওর হাকালুকি পাড়ের বন্যাকবলিত জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আন্দোলন গড়ে তুলেন। স্বাস্থ্য সেবার মান বৃদ্ধির জন্য প্রতিটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিশেষজ্ঞ এমবিবিএস ডাক্তার নিয়োগের দাবি তুলেন তিনি। এছাড়াও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ব্যনারে আর্তমানবতার সেবায় এগিয়ে আসেন এই তরুন আলেমে দ্বীন।

‘মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া শিক্ষা-সেবা আয়োজন’ নামি সংগঠনের মাধ্যমে বিভিন্ন সময় ঈদ সামগ্রী বিতরনের মধ্য দিয়ে বৃহত্তর বড়লেখাবাসির আরো কাছে চলে আসেন তিনি। সর্বস্তরের শিক্ষানবিশদের মেধা ও প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে গঠন করেন “তরঙ্গ সাহিত্য সংসদ”। প্রকাশ করেন ‘তরঙ্গ সাহিত্য ম্যাগাজিন’।

বহুমূখী প্রতিভার অধিকারি এই আলেমে দ্বীন সুদূর প্রসারী টার্গেট নিয়ে মুসলিম সন্তানদেরকে শৈশবেই ধর্মীয় শিক্ষার পরশ বিলাতে তার প্রতিষ্ঠিত “মা’হাদুল কাওনাইনে”র তত্বাবধানে গড়ে তুলেছেন একাধিক “মডেল মক্তব” ও ‘মাদরাসা-ই-কাওনাইন’। এই মডেল মক্তবগুলোর মাধ্যমে কোমলপ্রাণ বাচ্চাদেরকে ইসলামের মৌলিক বিষয়গুলোর জ্ঞান প্রদানে অসামান্য অবদান রেখে চলছেন। নিজ ইউনিয়নের পাশাপাশি আশপাশের এলাকাতেও এই শিক্ষা কার্যক্রম সম্প্রসারণের লক্ষে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন।

তরুণ এই আলেম গতো দুই টার্ম আগে “আমার স্বপ্ন ও প্রত্যাশা-আলোকিত নতুন এক বড়লেখা ” এই স্লোগানকে প্রতিপাদ্য বানিয়ে বড়লেখা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেন। নতুন ও একেবারে তরুণ প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হতে না পারলেও বিপুল সংখ্যক জনগণের ভালোবাসা ও সমর্থন নিয়ে ২য় স্থান অর্জন করেন। ঐ নির্বাচন তার আগামী দিনের কাজকে সহজ করে দিয়েছে বলেই সকলের ধারনা।

মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া। বর্তমান সময়ের আলেমদের জন্য একটি প্রেরণার নাম। যিনি তরুণ আলেম সমাজকে হাত ধরে দেখিয়ে দিচ্ছেন, কীভাবে একজন আলেম হয়েও সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখা যায়। বৈধ পন্থায় সম্পদ অর্জনের মাধ্যমে কীভাবে সামাজিক অবস্থান গড়ে তোলা যায়। একজন আলেম হয়ে বৈধ ব্যবসার পথ বের করে সকলকে অমুখাপেক্ষিতার সবক দিচ্ছেন তিনি।

জনকল্যাণমুখী কাজের বাইরে তিনি একজন আপাদমস্তক ব্যবসায়ি। ব্যবসায়িক জীবনেও মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া একজন সফল ব্যবসায়ী। দেশে বিদেশে বিভিন্ন প্রকার ব্যবসায় পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। দুবাই ভিত্তিক “আল লু’লু ওয়াল মারজান” গ্রুপের ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করছেন দীর্ঘদিন থেকে। “মক্কা হজ-ওমরাহ সার্ভিস”র পরিচালনা, দুবাই’র ”আল মদীনা ফ্যাশন” ও মালয়েশিয়ার “তুনজি সুপার সপ” এর ডাইরেক্টরের দায়িত্বও পালন করছেন। এছাড়াও অনেকগুলো ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত রয়েছে এই বিচক্ষণ আলেমের নাম।

মাওলানা সাইফুল ইসলাম ইয়াহইয়া। যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত ও কার্যক্রম গ্রহণ করে চলছেন বিরামহীন। তার সকল কাজগুলিই নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় এবং অনুসরণীয়। অব্যাহত আয়োজন-অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তিনি এখন সৃজনশীল তরুনদের আইডলে পরিনত হয়েছেন। তরুণ সমাজ তার কাছে এরকম কার্যক্রম আরো বেশি করে দেখতে চায়।বিশেষ করে, গতোকালের অনুষ্ঠানের পর তাঁর কাছে সকল শ্রেণী পেশার মানুষের প্রত্যাশা আরো বেড়ে গেলো।

আশাকরি, তিনি সকল মানুষের প্রত্যাশানুযায়ী আগামীতেও ধারাবাহিকভাবে এরকম চমৎকার সুন্দর ও উপযোগী উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। আল্লাহ তাআলা তাঁকে এবং তাঁর প্রতিষ্ঠিত সকল প্রতিষ্ঠান ও উদ্যোগকে দ্বীনের জন্য কবুল করুন। তাঁকে সুস্থতার সাথে দীর্ঘ হায়াত দান করুন। আমিন।

লেখক : আলেম, প্রাবন্ধিক

-কিউকে/জেড

ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  

Comment

Share.