পাকিস্তানের তিন স্থানে পঙ্গপালের হামলা

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এবার দক্ষিণ এশিয়াতে পঙ্গপালের প্রজনন ঘটছে। এতে ইতিমধ্যেই হামলার শিকার হয়েছে এ অঞ্চলের অন্যতম দুই বৃহৎ দেশ ভারত ও পাকিস্তান। পঙ্গপাল ঠেকাতে গত ফেব্রুয়ারিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে পাকিস্তান। অন্যদিকে করোনাভাইরাসে বিধ্বস্ত ভারত দুই ফ্রন্টে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়েছে।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) জানিয়েছে, শীতকাল বৃষ্টিবহুল হওয়ায় পঙ্গপালের জন্ম ও বংশ বিস্তার ঘটেছে পাকিস্তান ও ইরানের সীমান্তবর্তী এলাকায়। পুরো পাকিস্তানের ৩৮ শতাংশ এলাকা পঙ্গপাল প্রজননের উর্বর ক্ষেত্র হয়ে উঠেছে। এর মধ্যে রয়েছে বেলুচিস্তানে, সিন্ধে, পাঞ্জাব।

এফএও জানায়, এ মৌসুমে পঙ্গপালের হানায় শুধু পাকিস্তানেই যদি রবিশস্য যেমন গম, ডাল, আলু ইত্যাদি ১৫ শতাংশও নষ্ট হয়, তাহলে ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়াবে ২০৫ বিলিয়ন রুপি। ইতিমধ্যে বেলুচিস্তানে জন্ম নেয়া এক ঝাঁক পঙ্গপাল এ মাসের শুরুতে হানা দিয়েছে ভারতের রাজস্থানের আজমেরে। সেখানে বিপুল ফসল নষ্ট করছে এ ঝাঁকটি। যাদের রুখতে ইতিমধ্যে ঘুম হারাম হয়ে গেছে ওই অঞ্চলের কর্মকর্তাদের।

এফএও জানায়, এ মৌসুমে পঙ্গপালের হানায় শুধু পাকিস্তানেই যদি রবিশস্য যেমন গম, ডাল, আলু ইত্যাদি ১৫ শতাংশও নষ্ট হয়, তাহলে ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়াবে ২০৫ বিলিয়ন রুপি। প্রতিবেদনে বলা হয়, বেলুচিস্তানের উপকূলীয় ও অভ্যন্তরীণ এলাকায় পঙ্গপালের প্রজনন হচ্ছে। এ প্রজনন আগামী কয়েক সপ্তাহ অব্যাহত থাকবে। এদের মধ্য থেকেই কয়েকটি ঝাঁক বয়স্ক হচ্ছে। যারা মে মাসের শেষের দিকে ইরান ও ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত এলাকায় হানা দেবে। জুন পর্যন্ত এদের চলাচল অব্যাহত থাকবে।

সংস্থাটি জানায়, ২২ জুন থেকে দক্ষিণ ইরান, ইরান-বেলুচিস্তান সীমান্ত, ওমান ও পূর্ব আফ্রিকা থেকেও পঙ্গপালের আরো কয়েকটি গ্রুপ পাকিস্তান ও ভারতে প্রবেশ করতে পারে। ফলে কয়েকটি ঝাঁকের সম্মিলিত শক্তি ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করবে দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে। সূত্র: ডন,হিন্দুস্তান টাইমস

-কিউকে/জেড

ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  

Comment

Share.